৩০ দিনের মধ্যে বন্দর থেকে পণ্য ছাড় না নিলে কঠাের পদক্ষেপের হুঁশিয়ারি কাস্টমসের

বিশেষ প্রতিনিধি
চট্টগ্রাম বন্দর থেকে দ্রুত পণ্যখালাসে কঠোর নির্দেশনা দিয়েছে চট্টগ্রাম কাস্টমস কর্তৃপক্ষ। জাহাজ থেকে পণ্য নামিয়ে মাসের পর মাস বন্দর ইয়ার্ডে ফেলে রাখায় বন্দরের পরিচালন ব্যবস্থায় মারাত্নক জটিলতার সৃষ্টি হচ্ছে। এই অবস্থায় কাস্টমস কর্তৃপক্ষ উদ্যোগি হয়েই এই নোটিশ দিয়েছে।
জানতে চাইলে চট্টগ্রাম কাস্টমস কমিশনার মোহাম্মদ ফখরুল আলম শিপিং এক্সপ্রেসকে বলেন, আমদানি পণ্য এনে বন্দর ইয়ার্ডে ফেলে রাখার তো সুযোগ নেই। তাদেরকে নির্দিষ্ট সময় বেঁধে দেয়া হয়েছে যাবতীয় কাগজপত্র জমা দিয়ে পণ্য খালাসের কিন্তু অনেকেই দেখছি বিভিন্ন অজুহাতে পণ্য ইয়ার্ডে রেখে দিচ্ছেন। এতে বন্দরের সমস্যা তো হচ্ছেই; সরকার নির্ধারিত সময়ে রাজস্ব আয় থেকে বঞ্চিত হচ্ছে।
তিনি বলছেন, এজন্য জাহাজ থেকে পণ্য নামার ৩০ দিনের মধ্যে চট্টগ্রাম বন্দর থেকে পণ্য ছাড় নেয়ার নির্দেশনা দিয়েছি। একইসাথে চট্টগ্রাম শাহ আমানত বিমানবন্দরে পণ্য নামার ২১ দিনের মধ্যে ছাড়ের বাধ্যবাধকতা দেয়া হয়েছে। সেটি কার্যকর না হলে আমরা নিয়মিতই পণ্য নিলামে তুলবো। এর কোন ব্যতয় ঘটবে না।
জানা গেছে, চট্টগ্রাম কাস্টম হাউসের পক্ষ থেকে চট্টগ্রাম সমুদ্রবন্দর ও বিমান বন্দর থেকে পণ্য দ্রুত ছাড়করনের জন্য ৭ জুন একটি নোটিশ দিয়েছে। সেখানে বিমানবন্দরের জন্য ২১ দিন এবং সমুদ্রবন্দরের জন্য ৩০ দিন পণ্য রাখার সময়সীমা বেঁধে দেয়া হয়েছে। অন্যথায় বিধি মোতাবেক পদক্ষেপ গ্রহনের হুঁশিয়ারি দেয়া হয়েছে।
সেখানে কাস্টমস বলেছে, কাস্টমসকর্তৃপক্ষ একটি  ‌ব্যবসা-বিনিয়োগ বান্ধব পরিবেশ সৃষ্টি নিশি্চত করতে এই উদ্যোগ কার্যকর করছে। একইসাথে বৈধ আমদানিকারক এবং সৎ করদাতাদের উৎসাহিত করতে পণ্য নিলাম এবং আইনানুগ উপায়ে নিষ্পত্তি করা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *