বাংলা নিউজ

২০২১ সালের নয় মাসে যুক্ত হলো ১১টি দেশিয় সমুদ্রগামি জাহাজ

বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে বাংলাদেশে আমদানি-রপ্তানি পণ্য পরিবহনে নতুন করে যুক্ত হয়েছে ১১টি সমুদ্রগামি জাহাজ। ২০২১ সালের জানুয়ারি-সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ১০ মাসে নতুন এই জাহাজ যুক্ত হয়েছে; সব জাহাজই বাংলাদেশি মালিকানাধীন এবং দেশিয় পতাকাবাহি।

নতুন যুক্ত হওয়া ১১টি জাহাজের মধ্যে মেঘনা গ্রুপের আছে পাঁচটি, কর্ণফুলী গ্রুপের বহরে চারটি এবং বসুন্ধরা গ্রুপের বহরে যুক্ত হয় দুটি জাহাজ। এতে তাদের বিনিয়োগ হয়েছে প্রায় আড়াই হাজার কোটি টাকা।

নৌ বাণিজ্য অধিদপ্তরের প্রিন্সিপাল অফিসার ক্যাপ্টেন গিয়াস উদ্দিন বলেন, ‘বাজেটে সরকার বেশ কিছু সুযোগ-সুবিধা বাড়িয়ে দেয়ায় দেশিয় পতাকাবাহি সমুদ্রগামি জাহাজের সংখ্যা বাড়ছে। বড় শিল্পগ্রুপগুলো নিজেদের পণ্য পরিবহনে নিজস্ব জাহাজ কেনায় বিনিয়োগ করছেন। এই কারণে দেশিয় শিল্পগ্রুপের বহরে গত নয় মাসে মোট ১১টি জাহাজ যুক্ত হয়েছে। সবমিলিয়ে এখন ৭৪টি জাহাজ বাংলাদেশি পতাকাবাহী। সহসা আরও কয়েকটি জাহাজ যুক্ত হবে।

মেঘনা গ্রুপের জাহাজের মধ্যে আছে, ৩৫ হাজার ২২ টন পণ্য পরিবহন সক্ষমতার ‘মেঘনা প্রিন্সেস’। ৩২ হাজার ৯২৭ টন সক্ষমতার ‌’মেঘনা সান’, ৩১ হাজার ৮৭৭ টনের ‘মেঘনা লিবারটি’। ৩১ হাজার ৭৬১ টনের ‘মেঘনা ফ্রিডম’ এবং ৩১ হাজার ৭৬১ টনের ‘মেঘনা স্টার’ নামের একটি বাল্ক ক্যারিয়ার জাহাজ যুক্ত হয়েছে। নতুন পাঁচটি জাহাজসহ মেঘনা গ্রুপের বহরে মোট ১২টি সমুদ্রগামী জাহাজ দেশে-বিদেশে পণ্য পরিবহনে যুক্ত আছে।

কর্ণফুলী গ্রুপের বহরে আগে থেকেই খোলা -কন্টেইনার জাহাজ ছিল। নতুন করে যুক্ত হয়েছে সমুদ্রগ্রামী চারটি কনটেইনারবাহী জাহাজ। এগুলো হলো এইচআর হেরা, এইচআর ফারহা, এইচআর আরাই এবং এইচআর রেহা। দেশিয় পতাকাবাহি জাহাজের মধ্যে কর্ণফুলী গ্রুপের কেবল সমুদ্রগামি কন্টেইনার জাহাজ আছে। এ নিয়ে তাদের বহরে জাহাজের সংখ্যা দাঁড়াল ৬টিতে।

এছাড়া বসুন্ধরা গ্রুপের বহরে নতুন করে যুক্ত হয়েছে এলএনজি ও তেল পরিবহনকারী দুটি জাহাজ। এগুলো হলো ৪৬ হাজার টনের ‘বসুন্ধরা ওয়ারিয়রস’ এবং বসুন্ধরা মাল্টি ফুড প্রোডাক্টস লিমিটেডের তেল বা কেমিক্যাল পরিবহনের জন্য ৩০ হাজার টনের ‘বসুন্ধরা মালিকা’। এ নিয়ে বসুন্ধরা গ্রুপের বহরে মোট জাহাজের সংখ্যা হবে ৮টি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button