সাতদিন আটক থাকার পর চট্টগ্রাম বন্দর ছাড়লো ‘‌মেরিন বিয়া’ জাহাজ

0
701

বিশেষ প্রতিনিধি
৭ দিন ধরে বহির্নোঙরে রপ্তানি পণ্যবোঝাই করে বসে থাকার পর গতকাল বৃহষ্পতিবার চট্টগ্রাম বন্দর ছাড়লো বিদেশি জাহাজ ‘মেরিন বিয়া’।প্রায় পৌণে দুই কোটি টাকা ক্ষতিপুরণ দাবি করে বেসামরিক বিমান পরিবহন মন্ত্রনলায় মামলার পর উচ্চ আদালত জাহাজটি আটক করার রায় দিলে নৌ বাণিজ্য অধিদপ্তর সেটি আটক করে। গত ২৯ অক্টোবর থেকে জাহাজটি আটক করে চট্টগ্রাম বন্দরের বহির্নোঙরে পাঠানো হয়। সেই থেকে জাহাজটি আটক অবস্থায় ছিল। জাহাজটি বাংলাদেশি ব্যবসায়ীদের অন্তত ৭শ কোটি টাকার রপ্তানি পণ্য ছিল; যেগুলো  ইউরোপ-আমেরিকা হয়ে বিভিন্ন ক্রেতার কাছে পৌঁছানোর কথা ছিল। নির্ধারিত সময়ের সাতদিন পর জাহাজটি বন্দর ছাড়ায় সঠিক সময়ে এসব রপ্তানি পণ্য বিদেশি ক্রেতার কাছে পৌঁছানো নিয়ে উদ্বিগ্ন রয়েছেন এসব পণ্যের বাংলাদেশি রপ্তানিকারকরা।

জানতে চাইলে চট্টগ্রাম বন্দরের ডেপুটি কনজারভেটর ক্যাপ্টেন ফরিদুল আলম শিপিং এক্সপ্রেসকে বলেন, আদালতের নির্দেশনা অনুযায়ী আমরা জাহাজটি আটক করেছিলাম। এরপর বন্দর জেটি থেকে জাহাজটি বহির্নোঙরে পাঠিয়ে দেয়া হয়েছিল; সেখানে কোস্ট গার্ড, নৌ বাহিনী এবং বন্দরের নিরাপত্তা বিভাগ জাহাজটি আটকে রেখে তদারকি করছিল। উচ্চ আদালতের নতুন নির্দেশনা পাওয়ার পর জাহাজটি বন্দর ছেড়ে যাওয়ার অনুমতি দেয়া হয়েছে। গতকাল বৃহষ্পতিবার সেটি চট্টগ্রাম বন্দর ছেড়ে সিঙ্গাপুর বন্দরের উদ্দেশ্যে রওনা দিয়েছে।

অভিযোগ রয়েছে,  বেসামরিক বিমান পরিবহন মন্ত্রনালয়ের জন্য কিছু ফায়ার ট্রাক আমদানি করে গত জুন মাসে ‘‌মেরিন বিয়া’ জাহাজে করে চট্টগ্রাম বন্দরে পৌঁছেছিল। জাহাজে ট্রাকগুলো সঠিক এবং নিরাপদে না রাখার কারণে নতুন এই ট্রাকগুলোর বিভিন্ন অংশে ক্ষতিগ্রস্ত হয়। জাহাজ থেকে নামানোর পর আমদানিকারক গাড়িগুলো সরবরাহ নিয়ে দেখে সেগুলো ক্ষতিগ্রস্ত। সেই ক্ষতিগ্রস্ত ট্রাকের ক্ষতির পরিমান নির্নয় করে গত জুলাই মাসে উচ্চ আদালতে মামলা করে আমদানিকারক। উচ্চ আদালত সব বিবেচনায় নিয়ে জাহাজটি আটক করে ২ কোটি ৭২ লাখ টাকা ক্ষতিপুরন আদায়ের নির্দেশ দেয়।

জানা গেছে, ১২ বছর বয়সী ‘মেরিন বিয়া’ জাহাজটি পোর্ট কেলাঙ বন্দর থেকে রওনা দিয়ে ২৬ অক্টোবর চট্টগ্রাম বন্দরের বহির্নোঙরে পৌঁছে। পরদিন ২৭ অক্টোবর জাহাজটি আমদানি পণ্য নিয়ে চট্টগ্রাম বন্দর জেটিতে ভিড়ে। পণ্য নামানোর একদিন পর জাহাজটি রপ্তানি পণ্য বোঝাই করে চট্টগ্রাম বন্দর ছেড়ে সিঙ্গাপুর বন্দরের উদ্দেশ্যে রওনা দেয়ার কথা ছিল।; সিঙ্গাপুর বন্দর হয়ে বড় জাহাজে এসব রপ্তানি পণ্য জাহাজীকরণ হয়ে ইউরোপ-আমেরিকার নির্ধারিত গন্তব্যে রওনা দেয়ার শিডিউল ছিল কিন্তু তার আগেই জাহাজটি আটক করা হয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here