মায়ের্কস লাইনকে টপকে বিশ্বের শীর্ষ শিপিং কম্পানি এখন এমএসসি

Dhaka Post Desk

বিশেষ প্রতিনিধি

19 May, 2022

Views

জাহাজে কন্টেইনার পরিবহন সক্ষমতায় বিশ্বে এখন শীর্ষে উঠে এসেছে সুইস-ইতালিয়ান শিপিং জায়ান্ট মেডিটেরানিয়ান শিপিং কম্পানি (এমএসসি)। এতদিন দাপটের সাথে এই পদে আধিপত্য ছিল ড্যানিশ শিপিং কম্পানি মায়ের্কস লাইনের। তাদেরকে টপকে এখন শীর্ষে উঠল এমএসসি।
২০২১ সালের হিসাবে এমএসসি’র বহরে থাকা কন্টেইনার পরিবহন সক্ষমতা রয়েছে ৪২ লাখ ৮৪ হাজার একক; তাদের জাহাজ আছে ৬৪৫টি। আর দ্বিতীয়স্থানে থাকা মায়ের্কস লাইনের জাহাজ আছে ৭৩৮টি কিন্তু তাদের পরিবহন সক্ষমতা রয়েছে ৪২ লাখ ৮২ হাজার একক। এমএসসি’র চেয়ে মায়ের্কস লাইনের জাহাজ বেশি থাকলে কন্টেইনার পরিবহন সক্ষমতা ২ হাজার এককের মতো কম আছে। যদি দুই প্রতিষ্ঠানের মার্কেট শেয়ার প্রায় একই ১৭ শতাংশ।

বিশ্বজুড়ে লাইনার জাহাজ নিয়ে গবেষণাকারী সংগঠন আলফালাইনার ২০২২ সালের ৬ জানুয়ারি প্রকাশিত তথ্যে এই খবর মিলেছে। তাদের প্রকাশিত রিপোর্টে তৃতীয়স্থানে আছে সিএমএ-সিজিএম; যাদের কন্টেইনার পরিবহন সক্ষমতা ৩১ লাখ ৬৭ হাজার একক; জতাদের বহরে জাহাজ সংখ্যা সাড়ে ১২ শতাংশ। চতুর্থস্থানে আছে ২৯ লাখ ৩২ হাজার একক কন্টেইনার পরিবহন সক্ষমতা নিয়ে কসকো লাইন; তাদের জাহাজ আছে ৫৬৭টি। পঞ্চম স্থানে আছে হ্যাপাগ-লয়েড; যাদের কন্টেইনার পরিবহন ক্ষমতা ১৭ লাখ ৪৫ হাজার একক; জাহাজ সংখ্যা ২৫১টি।

জানা গেছে, ২০০৯ সালে বাংলাদেশে সমুদ্রপথে পণ্য পরিবহন কার্যক্রম শুরু করে মেডিটেরানিয়ান শিপিং কম্পানি। ২০১৭ সালে এসে এজেন্সি বদলে জেয়ন্ট ভেঞ্চার কম্পানি হিসেবে কাজ শুরু করে মেডিটেরানিয়ান শিপিং কম্পানি বাংলাদেশ নাম দিয়ে । প্রথমদিকে মাত্র ২০০টি কন্টেইনার দিয়েই যাত্রা শুরু হয়। এরপর ধারাবাহিকভাবে পণ্য পরিবহনে ভালো অগ্রগতি অর্জন করে এমএসসি। এমএসসি’র বাংলাদেশের পক্ষে কাজ করছে পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন বিষয়ক সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি আওয়ামীলীগের সংসদ সদস্য সাবের হোসেন চৌধুরীর মালিকানাধীন প্রতিষ্ঠান। এমএসসি বাংলাদেশ থেকে নিজস্ব জাহাজে ‘ফিডার অপারেটর’ হিসেবে কাজ করছে; একইসাথে জাহাজের ‘মেইন লাইন অপারেটর’।
জানতে চাইলে এমএসসি’র বাংলাদেশের হেড অফ অপারেশন এন্ড লজিস্টিকস আজমীর হোসাইন চৌধুরী বলছেন, বিশ্বের শিপিং সেক্টরে এ্টি অবশ্যই একটি বড় সুসংবাদ, আমাদের জন্য তো বটেই। এই অগ্রগতি আমাদের কাজকে এগিয়ে দিতে অনুপ্রেরনা যোগাবে। বিশ্বব্যাপি ধীরে গ্রাহক সন্তুষ্টির মাধ্যমে আমরা যে অর্জন করেছি ২০২৩ সালে নতুন জাহাজ যোগ হলে আমাদের অবস্থান আরো পোক্ত হবে। অন্যদের চেয়ে ব্যবধান অনেক বেশি হবে।
তিনি বলছেন, বাংলাদেশে আমাদের মার্কেট শেয়ার; নতুন সংবাদে নিশ্চয়ই আগামীতে দেশে আমাদের অবস্থান আরো এগিয়ে যাবে।

জানা গেছে, মেডিটেরানিয়ান শিপিং কম্পানির বহরে বর্তমানে নিজস্ব কন্টেইনার জাহাজ আছে ২৬৪টি; আর ভাড়া করা কন্টেইনার জাহাজ আছে ৩৮১টি। নতুন করে জাহাজ বুকিং দেয়া হয়েছে ৯৯টি; যেগুলোর মোট ধারনক্ষমতা প্রায় ১০ লাখ। সেগুলো যোগ হলে এই বছরই মায়ের্কস লাইনের সাথে সক্ষমতার ব্যবধান অনেক বেশি হবে এমএসসি’র। কারণ মায়ের্কস লাইন নতুন করে মাত্র ২৫টি জাহাজ বুকিং দিয়েছে; যেগুলোর ধারনক্ষমতা মাত্র ২ লাখ ৫৫ হাজার একক।

Leave a Reply

Your email address will not be published.