মায়ানমারে পণ্য পরিবহন বন্ধ করছে শিপিং লাইনগুলো

0
936

বিশেষ প্রতিনিধি
সামরিক অভ্যূত্থানের ফলে রাজনৈতিক অস্থিরতার কারণে বিশ্বের অনেক শিপিং লাইন মায়ানমারে পণ্য পরিবহন বন্ধ করেছে। অনেকেই জাহাজ শিডিউল কমিয়ে দিয়েছে; আবার অনেকেই পণ্য আমদানি-রপ্তানিতে বুকিং বাতিল করছে। এই অবস্থায় মায়ানমারমুখি জাহাজ চলাচলে স্থবিরতা দেখা দিয়েছে।
কনটেইনার বিশেষজ্ঞ মোহাম্মদ বিলাল খান বলেন, শীর্ষস্থানীয় শিপিং লাইন সিএমএ-সিজিএম গত ২০ ফেব্রুয়ারি থেকে মায়ানমারে অভ্যন্তরে সমস্ত চালানের জন্য নতুন বুকিং গ্রহণ স্থগিত করেছে এবং ৮ ই মার্চ থেকে সমস্ত কর্মচারী বাড়ি থেকে পরবর্তী বিজ্ঞপ্তি পর্যন্ত কাজ করেছেন।

বিলাল খান যোগ করেছেন, জার্মান পতাকাবাহক হাপাগ-লয়েডও পরবর্তী নোটিশ না হওয়া পর্যন্ত মিয়ানমার থেকে আমদানি বুকিং স্থগিত করেছে। শীর্ষস্থানীয় শিপিং লাইন মায়েরস্ক মিয়ানমারে সমস্ত জাহাজ চালনা স্থগিত করার ঘোষণা দিয়েছিল।
মায়ানমারের শিপিং কম্পানির কর্মকর্তারা বলছেন, প্রতিদিন বিক্ষোভ এবং সহিংসতার কারণে শ্রমিকরা বন্দরে কাজ করছে না। পণ্য পরিবহনে চালক-গাড়ি দুটিই খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না। যেসব ট্রাক পাওয়া যাচ্ছে সেগুলো উচ্চহারে ভাড়া আদায় করছে। ফলে সরবরাহ চ্যানেল বাধাগ্রস্ত হয়েছে। একইসাথে বেশিরভাগ শীর্ষ ট্রেডিং হাউস তাদের বুকিং স্থগিত করেছে। আবার কিছু কম্পানি সরবরাহের সময় পিছিয়ে আগামী মে মাস নাগাদ সরবরাহের দিন ঠিক করছে। এই অবস্থা চলতে থাকলে বড় ধরনের সংকটে পড়বে মায়ানমার।
সিঙ্গাপুরের এক ব্যবসায়ী বলেছেন, মিয়ানমারে ব্যাংক বন্ধ হওয়ার ফলে বিশেষত মার্কিন ডলারে অর্থ প্রদানের ক্ষেত্রেও সমস্যা তৈরি হয়েছে। ব্যাংকগুলি বন্ধ রয়েছে এবং ক্রেতা ও ব্যবসায়ীদের লেনদেন করা কঠিন হয়ে পড়েছে। আমাদের মিয়ানমার ক্রেতাদের সাথে বাণিজ্য পরিচালনায় আমরা সমস্যায় পড়ছি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here