বেসরকারী কন্টেইনার ডিপো পণ্যছাড়ে সময় লাগে চট্টগ্রাম বন্দরের তিনগুন, মাশুলও অনেক বেশি

0
147

বিশেষ প্রতিনিধি
বেসরকারী কন্টেইনার ডিপো থেকে তৈরী পোশাক শিল্পের কাঁচামাল খালাস করতে তিনগুণ বেশি সময় লাগছে। একইসাথে চট্টগ্রাম বন্দরের তুলনায় খরচও বেশি হচ্ছে বলে অভিযোগ করেছে গার্মেন্ট ব্যবসায়ীদের সংগঠন বিজিএমইএ। বিষয়টি হস্তক্ষেপ করতে আজ ২০ এপ্রিল জাতীয় রাজস্ব বোর্ডে চিঠি দিয়েছে সংগঠনটি।
জানতে চাইলে বিজিএমইএ নতুন নির্বাচিত সভাপতি ফারুক হাসান শিপিং এক্সপ্রেসকে বলেন, বর্তমানে বেসরকারী কন্টেইনার ডিপোতে পর্যাপ্ত স্থান, যন্ত্রপাতি এবং শ্রমিক স্বল্পতার কারণে পণ্যছাড়ে দীর্ঘসূত্রিতা হচ্ছে বলে আমাদের কাছে সদস্যরা অভিযোগ করেছেন। চট্টগ্রাম বন্দর থেকে যেখানে ২ দিনের মধ্যে পণ্য ছাড় নেয়া যায়, সেখানে বেসরকারী কন্টেইনার ডিপো থেকে পণ্যছাড়ে  ৬/৭ দিন সময় লেগে যাচ্ছে। কভিড মহামারির এই কঠিন সময়ে মেন নেয়া যায় না।
তিনি বলেন, বেসরকারী কন্টেইনার ডিপোর মাশুল চট্টগ্রাম বন্দরের চেয়ে অনেক বেশি। এই অবস্থায় বাড়তি মাশুল দিয়ে বেসরকারী কন্টেইনার ডিপো থেকে পণ্যছাড় করতে গেলে আমাদের প্রতিষ্ঠানগুলো রপ্তানিতে সক্ষমতা হারাবে। তাই আমরা জাতীয় রাজস্ব বোর্ডকে বিষয়টি হস্তক্ষেপ করতে বলেছি। একইসাথে চট্টগ্রাম বন্দর থেকে যাতে গার্মেন্ট শিল্পর কাঁচামাল খালাস অব্যাহত রাখার পদক্ষেপ নিতে নৌ পরিবহন মন্ত্রনালয়কে অনুরোধ করেছি।

উল্লেখ্য, চট্টগ্রাম বন্দর থেকে গার্মেন্ট শিল্পের কাঁচামাল সরাসরি খালাস করে নিজেদের কারখানায় নিয়ে যেত গার্মেন্ট মালিকরা। কিন্তু গত ২০২০ সালে কভিড মহামারি শুরুর পর বন্দরের ভিতর কন্টেইনার জটের চাপ কমাতে সাময়িক সময়ের জন্য বন্দরের বদলে বেসরকারী কন্টেইনার ডিপোতে নিয়ে খালাস শুরু হয়। সেটি এখনো অব্যাহত আছে। গার্মেন্ট মালিকরা চাইছে, আগের মতো চট্টগ্রাম বন্দর থেকেই সরাসরি পণ্যছাড় নিতে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here