পণ্য উঠানামায় ৪ শতাংশ প্রবৃদ্ধি চট্টগ্রাম বন্দরে

Dhaka Post Desk

বিশেষ প্রতিনিধি

8 August, 2022

Views

পণ্য উঠানামায় ৪ শতাংশ প্রবৃদ্ধি চট্টগ্রাম বন্দরের। সদ্য সমাপ্ত ২০২১-২২ অর্থবছরের এর আগের অর্থবছর ২০২০-২১ এর তুলনায় এই প্রবৃদ্ধি করেছে দেশের প্রধান এই সমুদ্রবন্দর।
বন্দরের হিসাবে, ২০২১-২২ অর্থবছরে ১১ কোটি ৮১ লাখ ৭৪ হাজার টন পণ্য উঠানামা হয়েছে এই সমুদ্রবন্দর দিয়ে। এর আগের অর্থবছরে পরিমান ছিল ১১ কোটি ৩৭ লাখ ২৯ হাজার টন।

সাধারনত চট্টগ্রাম বন্দরে তিন ধরণের পণ্য উঠানামা হয়। একটি হচ্ছে কন্টেইনারে, দ্বিতীয়ত খোলা পণ্য আকারে, তৃতীয়ত তরলজাত হিসেবে।এরমধ্যে কন্টেইনারে প্রবৃদ্ধি হয়েছে ৫ শতাংশ আর পণ্যের হিসাবে প্রবৃদ্ধি ৪ শতাংশ। তবে ২০২০-২১ অর্থবছরে ১৬ শতাংশ প্রবৃদ্ধি হয়েছিল এই বন্দরে। সেই তুলনায় এবার প্রবৃদ্ধি অনেক কম হয়েছে। অবশ্য আগের বছরের চেয়ে ৪৪ হাজার টন বেশি পণ্য উঠানামা হয়েছে দেশের প্রধান চট্টগ্রাম বন্দরে।
জানতে চাইলে চট্টগ্রাম বন্দরে সচিব ওমর ফারুক বলেন, করোনা মহামারির ধাক্কা কাটিয়ে বাংলাদেশের অর্থনীতি পুরোদমে স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরেছে পণ্য উঠানামায় প্রবৃদ্ধি এর বড় প্রমান।

চট্টগ্রাম বন্দরে পণ্য উঠানামার যে হিসাব দেয়া হয়েছে তার মধ্যে চট্টগ্রাম বন্দরের প্রধান জেটি, এনসিটি, সিসিটি, কেরানীগঞ্জের পাঁনগাও কন্টেইনার টার্মিনাল, ঢাকা কমলাপুর আইসিডিতে পণ্য উঠানামার তথ্য যুক্ত আছে। ২০২০-২১ অর্থবছরে প্রায় ১২ শতাংশ প্রবৃদ্ধি হয়েছে। ২০১৯-২০ অর্থবছরে প্রায় সাড়ে তিন শতাংশ প্রবৃদ্ধি হয়েছিল। ২০১৮-১৯ অর্থবছরে পৌণে ৬ শতাংশ; ২০১৭-১৮ অর্থবছরে ১৬ শতাংশ; ২০১৬-১৭ অর্থবছরে সাড়ে ১২ শতাংশ; ২০১৫-১৬ অর্থবছরে ১৫ শতাংশ প্রবৃদ্ধি অর্জন করেছিল এই বন্দর। মুলত করোনা মহামারির ধাক্কায় দুই বছর প্রবৃদ্ধি কমে এসেছিল। অবশ্য বিশ্বের সবগুলো বন্দরেই তখন নেতিবাচক প্রবৃদ্ধি হয়েছিল; সেই বিবেচনায় চট্টগ্রাম বন্দরের অর্জন অনেক বেশি। এখন করোনা মহামারির সেই ধকল কাটিয়ে পুরোদমে গতিতে ফিরেছে চট্টগ্রাম বন্দর।

Leave a Reply

Your email address will not be published.