ডিসেম্বরেই সরছে চট্টগ্রাম বন্দরের ভিতর জরাজীর্ণ অকশন শেড 

Dhaka Post Desk

বিশেষ প্রতিনিধি

20 January, 2022 17 Views

17

চট্টগ্রাম বন্দরের ভিতর সংরক্ষিত এলাকা থেকে সরিয়ে নেয়া হচ্ছে অনেক বছরের পুরোনো-জরাজীর্ণ অকশন শেড। আগামী ডিসেম্বরের মধ্যেই সেই অকশ শেড সরিয়ে বন্দরের বাইরে থাকা নতুন অকশন শেডে স্থানান্তর করা হচ্ছে।

বন্দরের ভিতর পাঁচ একর জায়গাজুড়ে থাকা এ শেডটি সরানো গেলে বছরে কমপক্ষে ১ লাখ একক কনটেইনার উঠানামার-রাখার সুযোগ তৈরি হবে।

চট্টগ্রাম কাস্টম হাউসের যুগ্ম কমিশনার তোফায়েল আহমেদ বলছেন, আগামী ডিসেম্বরের মধ্যে বন্দরের ভিতর পুরণো অকশন শেডে থাকা সব পণ্য সরিয়ে তা বন্দর কর্তৃপক্ষকে বুঝিয়ে দেওয়ার লক্ষ নিয়ে আমরা কজা করছি। ইতোমধ্যে সেই শেডে থাকা পণ্যের ইনভেন্ট্রি বা গণনা কার্যক্রম চলছে। অনেক পণ্য নিলামে তোলা হয়েছে। আরো বেশ কটি নিলাম সম্পন্ন করা গেলে দ্রুই শেড খালি হয়ে যাবে। এতে বন্দরের সক্ষমতা বৃদ্ধি পাবে।

চট্টগ্রাম বন্দরের সচিব মো. ওমর ফারুক বলেছেন, কাস্টমস কর্তৃপক্ষের এই উদ্যোগ অনেক প্রশংসনীয়। এই অকশন শেড সরানো হলে সেখানে প্রায় ১০ হাজার একক কনটেইনার রাখার জায়গা তৈরি হবে। এতে বছরে ১ লাখ এককের বেশি কনটেইনার উঠানামার সুযোগ তৈরী হবে।

বন্দর ব্যবহারকারীরা বলছেন, চট্টগ্রাম বন্দরের ৪ নম্বর জেটি গেটের পাশে থাকা পুরোনো অকশন শেড প্রায় জরাজণী অবস্থায় রয়েছে। অকশন শেড সরাতে এর আগে একাধিকবার কাস্টমস কর্তৃপক্ষকে চিঠি দেওয়া হয়েছিল; উচ্চ পর্যায়ে অনেক বৈঠক হয়েছিল। বন্দরের বিভিন্ন সভায় কাস্টমসের পুরোনো অকশন শেড সরিয়ে নিতে বলা হয়। কিন্তু তাতে সুফল মিলেনি। তবে এবার কাস্টমস কমিশনার মোহাম্মদ ফখরুল আলমের কঠোর নির্দেশনা-উদ্যোগে বন্দরের সংরক্ষিত এলাকা থেকে পুরোনো অকশন শেডটি সরিয়ে নেয়া হচ্ছে। এ লক্ষ্যে ১১ অক্টোবর কাস্টম হাউসের উপকমিশনার আল আমিন স্বাক্ষরিত একটি গণবিজ্ঞপ্তিও জারি করে চট্টগ্রাম কাস্টম হাউস।

বন্দরের ইয়ার্ড থেকে অকশন শেড সরিয়ে নিতে ২২ কোটি টাকা ব্যয়ে বন্দরের বাইরে নতুন অকশন শেড নির্মাণ করে দেয় বন্দর কর্তৃপক্ষ। ২০১৫ সালের সেপ্টেম্বরে সেটি উদ্বোধন হলেও ছয় বছর ধরে নানা জটিলতায় আটকে ছিল এই প্রক্রিয়া। এখন সেখানে পণ্য রাখা শুরু হলে পুরনো শেড খালি করা সম্ভব হচ্ছিল না। ফলে অকশনের জন্য দুটি শেডই ব্যবহৃত হচ্ছিল।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *