কাউকে না জানিয়ে লাইটার জাহাজের ভাড়া বাড়ালো ওয়াটার ট্রান্সপোর্ট সেল

Dhaka Post Desk

বিশেষ প্রতিনিধি

28 November, 2022

Views

জ্বালানি তেলের মূল্যবৃদ্ধির কারণে দেশের বিভিন্ন নৌপথে পণ্য পরিবহনের ভাড়া ১৫ থেকে ২২ শতাংশ বাড়ানোর ঘোষণা দিয়েছেন লাইটার জাহাজ মালিকরা; যা গত ৬ আগস্ট থেকে কার্যকর হবে। নৌ পথে লাইটার জাহাজ পরিচালনাকারী সংস্থা ওয়াটার ট্রান্সপোর্ট সেল (ডব্লিউটিসি) এর নির্বাহী পরিষদের সভায় আজ বৃহষ্পতিবার চট্টগ্রামের কার্যালয়ে এই সিদ্ধান্ত নেন জাহাজা মালিকদের তিন সংগঠন।

উল্লেখ্য, দেশের অন্তত ৩৮টি নৌ রুটে পণ্য পরিবহনে জাহাজ বুকিং দিয়ে থাকে ডব্লিউটিসি; যেখানে লাইটার বা ছোট জাহাজ সরবরাহ দেয় জাহাজ মালিকদের তিন সংগঠন বাংলাদেশ কার্গো ভেসেল ওনার্স অ্যাসোসিয়েশন, কোষ্টাল শিপ ওনার্স অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ, ইনল্যান্ড ভ্যাসেল ওনার্স অ্যাসোসিয়েশন অব চট্টগ্রাম।

এমন এক সময়ে লাইটার জাহাজভাড়া বাড়ানো হলো যখন সড়কপথে পণ্য পরিবহনে ট্রাক, কাভার্ডভ্যান, লরি মালিকরা নিজেরা ভাড়া বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়ে সরকারের কাছে অনুমতির জন্য প্রস্তাব আকারে জমা দিয়েছেন। সেই প্রস্তাব এখনো কার্যকর হয়নি। এরইমধ্যে লাইটার জাহাজ মালিকদের তিনটি সংগঠন নিজেরা বসেই ভাড়া বাড়ানোর এই অবৈধ সিদ্ধান্ত নেন। ভাড়া বাড়ানোর ক্ষেত্রে সরকারের নৌ পরিবহন মন্ত্রনালয়ের অনুমতির বাধ্যবাধকতা রয়েছে লাইটার জাহাজ পরিচালনা আইনেই। আর জাহাজ ভাড়া পরিশোধ করে আমদানিকারকরা।তাই তাদের সাথে আলােচনা এমনকি অবহিত করেনি ওয়াটার ট্রান্সপোর্ট সেলের এই নেতার। ফলে এই ভাড়া শেষপর্যন্ত কতটা কার্যকর করা যাবে তা নিয়ে শঙ্কা রয়েছে।
ওয়াটার ট্রান্সপোর্ট সেলের আহবায়ক নুরুল হক অবশ্য স্বীকার করে নিয়েছেন, তারা অনুমতি নেননি। ভাড়া বাড়ানোর জন্য আমরা নৌ মন্ত্রীকে অবহিত করেছি। আর এমনভাবে বাড়তি ভাড়া নির্ধারন করা হয়েছে, যাতে সরকার কোন প্রশ্ন তুলতে না পারে। আমাদের কাছে চাপ ছিল ভাড়া আরো বেশি বাড়ানোর কিন্তু আমরা জ¦ালানি তেলের ভাড়া যতটুকু বেড়েছে ততটাই বাড়িয়েছি।

জানা গেছে, আজ বৃহষ্পতিবার জাহাজ মালিকদের তিনটি সংগঠন বাংলাদেশ কার্গো ভেসেল ওনার্স অ্যাসোসিয়েশন, কোষ্টাল শিপ ওনার্স অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ, ইনল্যান্ড ভ্যাসেল ওনার্স অ্যাসোসিয়েশন অব চট্টগ্রাম এর নেতারা চট্টগ্রামের আগ্রাবাদে ওয়াটার ট্রান্সপোর্ট সেলের অফিসে বসে এই সিদ্ধান্ত নেন।
বৈঠকে সিদ্ধান্ত নেয়া হয়, ডব্লিউটিসি এর বর্তমান ভাড়া তালিকায় উল্লিখিত কুতুবদিয়া, চট্টগ্রাম বন্দরের বহির্নোঙ্গর ও কর্ণফুলী নদীর বিভিন্ন ঘাট থেকে ঢাকা, বরিশাল ও চাঁদপুর গন্তব্যে পণ্য পরিবহনের যে ভাড়া নির্ধারণ করা আছে সেই ভাড়ার সঙ্গে জ্বালানি তেলের বৃদ্ধিকৃত মূল্য সমন্বয় বাবদ ২২ শতাংশ ভাড়া বৃদ্ধি করা হলো। ঢাকা, বরিশাল ও চাঁদপুর ছাড়া দেশের অন্যান্য গন্তব্যে আগের ভাড়ার সঙ্গে ১৫ শতাংশ যুক্ত হবে।
তবে স্থানীয় গন্তব্যে অর্থাৎ বহির্নোঙ্গর থেকে চট্টগ্রামের কর্ণফুলী নদীর উপকূলে বিভিন্ন ঘাটে পণ্য পরিবহনে ভাড়া বাড়বে না বলে বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে।

চট্টগ্রাম থেকে সবচে বেশি পণ্য পরিবহন হয় চট্টগ্রাম-ঢাকা-নারায়নগঞ্জ-মেঘনা রুটে। এই রুটে প্রতিটনে পণ্য পরিবহনের ভাড়া ছিল ৪৭৮ টাকা, ২২ শতাংশ বেড়ে ভাড়া ৫৮৩ টাকা নির্ধারন করা হয়েছে। চট্টগ্রাম-বরিশাল রুটে প্রতিটনে ৪৭৫ টাকা থেকে বেড়ে ৫৮০ টাকা। আর চট্টগ্রাম-কক্সবাজার রুটে ৭০০ টাকা থেকে ১৫ শতাংশ বেড়ে ৮০৫ টাকা নির্ধারন করা হয়েছে।
চট্টগ্রামের এক ভোগ্যপণ্য আমদানিকারক বলেন, ‘লাইটার জাহাজ মালিকরা কখনোই আইন মানেননি মানতে চান না। ভাড়া বাড়ানোর ক্ষেত্রে চট্টগ্রাম চেম্বারকে অবহিত করার নিয়ম চালু ছিল। কিন্তু অফিস চট্টগ্রামে হলেও এখন নেতৃত্ব ঢাকাকেন্দ্রিক হওয়াতে তারা আর কাউকে পাত্তা দিতে চান না। এবারের মিটিংয়ের আগে বুধবার জাহাজ মালিকরা ঢাকায় বৈঠক করে এসেছেন। শুধু চট্টগ্রামে এসে ঘোষনা দিয়েছেন। এর ধারাবাহিকতায় এবারো ভাড়া বাড়লো। কিছু নেতার অনিয়ম-দুর্নীতি-দৌরাত্নের কারণে ওয়াটার ট্রান্সপোর্ট এখন অস্তিত্ব হারাতে বসেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.