কলম্বো বন্দরে তিনদিনের জাহাজজট; দুশ্চিন্তা বাড়ছে বাংলাদেশে

Dhaka Post Desk

বিশেষ প্রতিনিধি

1 February, 2023

Views

চট্টগ্রাম বন্দর থেকে একটি রপ্তানি কন্টেইনার শ্রীলংকার কলম্বো বন্দরের জলসীমায় পৌঁছার পর জেটিতে ভিড়তে তিনদিন বাড়তি সময় লাগছে। আগে একটি জাহাজকে সেই জেটিতে পৌঁছতে সময় লাগতো ৮ দিন; এখন লাগছে ১০-১১দিন। তিনদিন বাড়তি বসে থাকায় অন্য দেশের মতো বাংলাদেশি শিপিং লাইনগুলোকে চরমভাবে ভোগাচ্ছে। এমনিতেই জাহাজে পণ্য পরিবহনে আগের চাইতে খরচ অনেক বেশি হচ্ছে; এরইমধ্যে কলম্বো বন্দরে জাহাজজট দেশিয় ব্যবসায়ীদের নতুন শঙ্কা তৈরী করেছে। জানতে চাইলে বিদেশি শিপিং লাইন ‘সী কনসোটিয়ামের’ বাংলাদেশ প্রধান ক্যাপ্টেন এ এস চৌধুরী বলছেন, আমাদের জাহাজ চট্টগ্রাম থেকে কলম্বো পৌঁছে জেটিতে ভিড়তে তিনদিন বাড়তি সময় লাগছে। এতে করে কলম্বো হয়ে যে কন্টেইনারগুলো ইউরোপ-আমেরিকা যাবে সেগুলো বিলম্বিত হচ্ছে। কবে নাগাদ এ্ই সমস্যা সমাধান হবে বলা মুশকিল। আমরা আতঙ্কিত।

চট্টগ্রাম-কলম্বো রুটে জাহাজ পরিচালনাকারী মেডিটেরানিয়ান শিপিং কম্পানি (এমএসসি) এক শীর্ষ কর্তা বলছেন, চট্টগ্রাম বন্দরে কোন জাহাজজট নেই আমরা স্বস্তিতে ছিলাম। কিন্তু কলম্বো বন্দরের জাহাজজট আমাদের উদ্বিগ্ন করে তুলেছে। এমনিতেই জাহাজের ভাড়া এখন আকাশচুম্বি। তার মধ্যে এই জট সত্যই টেনশন বাড়াচ্ছে।
তিনি বলেন, আমরা এখন কলম্বো বাদ দিয়ে দ্রুত অন্য কোন বন্দরেও যেতে পারছি না। কারণ আগে থেকেই কন্টেইনার-জাহাজের বুকিং আছে। এরপর আমরা বিকল্প রুট দিয়ে পাঠানোর খোঁজ করছি।

উল্লেখ্য, চট্টগ্রাম বন্দর থেকে সরাসরি কন্টেইনারভর্তি পণ্য ইউরোপ-আমেরিকা যায়ার সুযোগ খুব বেশি নেই। মাত্র একটি সার্ভিস চালু হয়েছে চট্টগ্রাম-ইতালি রুটে। বাকি সব পণ্য চট্টগ্রাম থেকে প্রথমে ট্রান্সশিপমেন্ট বন্দর যেমন-কলম্বো, সিঙ্গাপুর, মালয়েশিয়ার পোর্ট কেলাঙ, তানজুম পেলিপাস বন্দর হয়েই যেতে হচ্ছে। চট্টগ্রাম-কলম্বো রুটে পণ্য পরিবহনের ৪০ শতাংশই পরিবহন হয়। ফলে বাংলাদেশের দুশ্চিন্তাটা বেশি।

Leave a Reply

Your email address will not be published.