এবার নদীপথে ভারতে খাদ্যপণ্য রপ্তানি করলো প্রাণ

0
653

বিশেষ প্রতিনিধি

অভ্যন্তরীণ নৌপথ ব্যবহার করে বাংলাদেশ থেকে প্রথমবার ভারতে খাদ্য পণ্য রফতানি শুরু হয়েছে।প্রাণ লিচু ড্রিঙ্কের ৪০ হাজার কার্টনযুক্ত একটি বার্জ ১৭ মার্চ নরসিংদীর পলাশের প্রাণ শিল্প উদ্যান থেকে যাত্রা শুরু করে। বাংলাদেশ থেকে অভ্যন্তরীণ নৌপথে প্রায় ১ হাজার কিলোমিটার পাড়ি দিয়ে জাহাজটি আট দিনের মধ্যে কলকাতায় পৌঁছানোর কথা রয়েছে। স্থলবন্দর দিয়ে একই পরিমাণ পণ্য রফতানি করতে ৪০ টি ট্রাক লাগতো। নৌপথে পণ্য পরিবহন করায় সময় ও অর্থ দুটোর সাশ্রয় হচ্ছে বলে জানিয়েছে প্রাণ কর্তৃপক্ষ। এতে রপ্তানি ব্যয় অন্তত ৩৫ শতাংশ কম লাগবে।

এর আগে বাংলাদেশ থেকে উপকূলীয় নৌ রুটে সিমেন্ট পণ্য রপ্তানি করেছিল প্রিমিয়ার সিমেন্ট। খাদ্য পণ্য রপ্তানির এই উদ্যোগ প্রথম।

প্রাণ-আরএফএল গ্রুপের চেয়ারম্যান ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা আহসান খান চৌধুরী বলেছেন, ভারতে প্রাণ পণ্যগুলির একটি বিশাল বাজার ছিল যার জনসংখ্যা ১৩০ কোটি। প্রাণ তার পণ্যটি ভারতের সমস্ত প্রদেশে রফতানি করছে এবং এই উদ্যোগের মাধ্যমে দুই প্রতিবেশীর মধ্যে বাণিজ্য সম্পর্ক আরও জোরদার হবে।

বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ পরিবহন কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান কমোডর গোলাম সাদেক বলেছেন, অভ্যন্তরীণ নৌ পরিবহন ও বাণিজ্যের আওতায় ভারতের সাথে নৌপথ দিয়ে রফতানি মূলত ফ্লাই অ্যাশ পরিবহনের উপর নির্ভর করে। আমরা যদি নৌপথ ব্যবহার করে বিভিন্ন পণ্য রফতানি করতে সক্ষম হয়ে থাকি তবে এটি ব্যবসা বৃদ্ধি এবং দুই দেশের মধ্যে পারস্পরিক সম্পর্ক বাড়াতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে।’

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী বলে নৌপথ দিয়ে রফতানির উদ্বোধন বাংলাদেশিদের জন্য গর্বের বিষয়। নদীপথে পণ্য পরিবহনে এই মন্ত্রনালয় নদীর রুটের সংখ্যা বৃদ্ধি এবং নদীর নাব্যতা পুনরুদ্ধারে কাজ করছে।

তিনি বলেন, ‘আমরা আশা করি, আমাদের দেশে প্রান-আরএফএল গ্রুপের মতো অনেকগুলি সংস্থা গঠিত হবে এবং দেশের অর্থনীতি এগিয়ে যাবে।’ তিনি বলেছিলেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here