ইস্পাহানি-সামিটের সাথে মিলে চট্টগ্রামে কন্টেইনার ডিপো করছে মায়ের্কস লাইন

Dhaka Post Desk

বিশেষ প্রতিনিধি

1 February, 2023

Views

ইস্পাহানি-সামিট গ্রুপের সাথে মিলে ২লাখ বর্গফুটের কন্টেইনার ডিপো তৈরী করছে মায়ের্কস লাইন। চট্টগ্রামের পাহাড়তলীতে আধুনিক এই কাস্টমস বন্ড ওয়ারহাউস বা কন্টেইনার রাখার ইয়ার্ড তৈরী করা হবে ২০২২ সালের মধ্যেই। এতদিন কন্টেইনার পরিবহন; শিপিং ব্যবসার মধ্যে সীমিত থাকলেও এই প্রথম বাংলাদেশে অফডক ব্যবসায় বিনিয়োগে নেমেছে ড্যানিশ কম্পানি মায়ের্কস লাইন।

ড্যানিশ কম্পানিটি মনে করছে, এই সুবিধা নিশ্চিত হলে কন্টেইনার পণ্য পরিবহনে বাংলাদেশে মায়ের্কস লাইনের প্রতিযোগিতায় অনেক এগিয়ে যাবে। একইসাথে বাংলাদেশ থেকে পণ্য পরিবহন সুবিধা অনেক বাড়বে। পণ্য পরিবহন ভোগান্তি কমবে। বাংলাদেশ বিশ্ববাজারে প্রতিযোগিতায় এগিয়ে যাবে।

এ বিষয়ে মায়ের্কস লাইনের মহাব্যবস্থাপক তানিম শাহরিয়ারকে ফোন দিলে তিনি সাড়া দেননি। তবে মায়ের্কস লাইনের এক কর্মকর্তা বলছেন, ২০২১ সালে চট্টগ্রাম বন্দরকে বড় ধরনের জটে পড়তে হয়েছিল। এর মুল কারণ জাহাজ থেকে নামিয়ে চট্টগ্রাম বন্দর ইয়ার্ডে কন্টেইনার রাখার স্থান সংকুলান না থাকা। এরফলে রপ্তানি পণ্যবাহি কন্টেইনার দেরিতে জাহাজীকরণ হয়েছিল। আর আমদানি পণ্যবাহি কন্টেইনার জটে পড়েছিল। এর মাশুল সবাইকে দিতে হয়েছিল।

ডিপোগুলোর কন্টেইনার উঠানামার ২০২১ সালের তৈরী তালিকা থেকে জানা গেছে, আমদানি-রপ্তানি কন্টেইনার ব্যবস্থাপনায় বেসরকারী ১৯টি কন্টেইনার ডিপোর মধ্যে শীর্ষস্থান ধরে রেখেছে ‘কেডিএস লজিস্টিকস’। ২০২১ সালে কন্টেইনার ব্যবস্থাপনার সাড়ে ১৪ শতাংশ একাই করেছে। দ্বিতীয়স্থানে থাকা পোর্ট লিংকস লজিস্টিকস করেছে সাড়ে ১৩ শতাংশ; তৃতীয়স্থানে থাকা সামিট এলায়েন্স পোর্ট (ই-ডব্লিউ) করেছে পৌণে ১২ শতাংশ।

আর ইস্পাহানি সামিট অ্যালায়েন্স টার্মিনাল করেছে ০.৫৭ লাখ একক। এখন এই দুই প্রতিষ্ঠানই মায়ের্কস লাইনের সাথে যৌথ বিনিয়োগে ডিপো নির্মান করছে।

জানা গেছে, চট্টগ্রামে ১৬টি শিল্প প্রতিষ্ঠানের ১৯টি বেসরকারি কনটেইনার ডিপো রয়েছে। এসব ডিপোর গত বছরের আমদানি-রপ্তানি পণ্যবাহী কনটেইনারের সংখ্যা হিসাব করে এ চিত্র পাওয়া গেছে। সব কটি ডিপো মিলে গত বছর (২০২১ সাল) মোট ১০ লাখ একক কনটেইনার ব্যবস্থাপনা করেছে। এর মধ্যে সাত লাখ রপ্তানি পণ্যের ও তিন লাখ আমদানি পণ্যের কনটেইনার। চট্টগ্রাম বন্দর দিয়ে মোট যে পরিমাণ পণ্য রপ্তানি হয়, তার প্রায় ৯০ শতাংশই পরিবহন করা হয় ১৯টি বেসরকারি কনটেইনার ডিপো থেকে। আর বন্দর দিয়ে আমদানি পণ্য নিয়ে আসা মোট কনটেইনারের মধ্যে গড়ে ২৩ শতাংশ খালাস হয় এসব ডিপো থেকে। আমদানি-রপ্তানি ছাড়াও খালি কনটেইনারও সংরক্ষণ করে বেসরকারি ডিপোগুলো। সেই হিসাব এ ক্ষেত্রে করা হয়নি।

Leave a Reply

Your email address will not be published.